ফটিকছড়ি বানান / ‘Fatikchari’ নয়, ‘Fatickchhari’

ফটিকছড়ি বানান / ‘Fatikchari’ নয়, ‘Fatickchhari’

 বিশেষ সংবাদদাতা
  ২০১৯-০৯-২৪: ০২:১১ পিএম

চট্টগ্রামের ঐতিহ্যবাহী উপজেলা ফটিকছড়ির ইংরেজি বানান শুদ্ধ রুপে লেখা ও ব্যবহারের জন্য উপজেলার বাসিন্দা ও প্রতিষ্টানগুলোকে নির্দেশনা দিয়েছে উপজেলা প্রশাসন।

উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে জারি করা এক গণবিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, ‘এমতাবস্তায় সকলের অবগতির জন্য জানানো যাচ্ছে যে, ফটিকছড়ি’র ইংরেজি বানান ‘Fatikchari’ লেখা হচ্ছে। প্রকৃতপক্ষে ফটিকছড়ি ইংরেজিতে শুদ্ধ বানান হবে ‘Fatickchhari’ ।

‘এমতাবস্তায় উপজেলার সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, সরকারি-বেসরকারি দপ্তর ও বিভাগ সমূহে  ফটিকছড়ি’র ইংরেজি শুদ্ধ বানান ‘Fatickchhari’ লেখার অনুরোধ করা গেল।’

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সায়েদুল আরেফিন বলেন, দীর্ঘ সময় ধরে ফটিকছড়ির বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, সরকারি-বেসরকারি দপ্তরে ভুল ভাবে ইংরেজি বানান ‘Fatikchari’ লেখা হচ্ছিল। কিন্তু এর শুদ্ধরুপ হলো ‘Fatickchhari’। গত ২৯ আগষ্ট উপজেলার মাসিক সভায় উপজেলার সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, সরকারি-বেসরকারি দপ্তরে শুদ্ধরুপে ‘Fatickchhari’ লেখার বিষয়ে সিদ্ধান্ত হয়। এই সিদ্ধান্তের প্রেক্ষিতে গত সপ্তাহে গণবিজ্ঞপ্তি জারি করা হয়েছে।এ সংক্রান্ত একটি চিঠি সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, সরকারি-বেসরকারি দপ্তরেও পাঠানো হয়েছে। নাগরিকদের প্রতি শুদ্ধ বানারে ‘Fatickchhari’ লিখার অনুরোধ রইলো।

ফটিকছড়ির উপজেলার বাসিন্দা ও ত্রৈমাসিক রঙপেন্সিল’র সম্পাদনা সহযোগী মুহাম্মদ নাসিরুদ্দিন মানিক বলেন, দেশের বিভিন্ন জেলা উপজেলার নামের বানান ইংরেজিতে ভুল ভাবে লেখা হয়। সে ভুল থেকে বাদ পড়েনি দেশের বৃহত্তম উপজেলা 'ফটিকছড়ি'র নাম। বাংলায় শুদ্ধ করে লিখতে পারলেও ইংরেজিতে ঘটে যত ঝামেলা। প্রচলিত কিছু বানান আছে, যেমন : 'Fatickchari', 'Fatikchari', 'Fatikchhari' এগুলোর মধ্যে যার যেটা ইচ্ছা সেটা ব্যবহার করে যাচ্ছে। কিন্তু এর মধ্যে কোনটি শুদ্ধ, তা কেউ আঁচ করতে পারছে না। আরো আশ্চর্যের বিষয় হচ্ছে আমাদের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোতেও ভুলভাবে শিখানো হচ্ছে এই নামটি। এমনকি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান গুলো নিজেদের প্রতিষ্ঠানের নাম ও ঠিকানায় ভুল বানানে ইংরেজিতে ফটিকছড়ি লিখে আসছে বছরের পর পছর!

তবে ব্যাকরণবিদগণ শেষের বানানটিকে অর্থাৎ 'Fatikchhari' কে শুদ্ধ বলে মত দিয়েছেন। রাষ্ট্রীয় ভাবেও শেষোক্ত বানানটি ব্যবহৃত হচ্ছে। পাসপোর্ট-সার্টিফিকেট সহ যাবতীয় সরকারি ওয়েবসাইট ও নথিপত্রে শুদ্ধভাবে Fatikchhari (ফটিকছড়ি) লেখা হচ্ছে। ফটিকছড়ি বানান শুদ্ধ করে লিখতে ও শিখাতে গত আড়াই বছর ধরে কাজ করছি। উপজেলা প্রশাসনের এ পদক্ষেপে সেই কাজ আজ সার্থকতা পেলো।

চট্টগ্রাম২৪ডটকম/আমম


নিউজটি শেয়ার করুন

সাবস্ক্রাইব ইউটিউব চ্যানেল