রড সিমেন্টের গোডাউনে পেঁয়াজের আড়ত!

রড সিমেন্টের গোডাউনে পেঁয়াজের আড়ত!

 নিজস্ব প্রতিবেদক
  ২০১৯-১০-০২: ০৬:০২ পিএম

পেঁয়াজের ঝাঁজে চোখের পানিতে সাধারণ মানুষের দিশেহারা অবস্থা। ভারত পেঁয়াজ রফতানি বন্ধ ঘোষণার পরেরদিনই চট্টগ্রামের খাতুনগঞ্জে অবিশ্বাস্যভাবে বেড়েছে পেঁয়াজের দাম। প্রতিকেজিতে দাম বেড়েছে ৩৫ থেকে ৪০ টাকা পর্যন্ত। খুচরা বাজারে প্রতি কেজি পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ১২০ টাকায়।

সংকট শুরু পর থেকে একটি প্রশ্নই ঘুরপাক খাচ্ছে সবার মনে,এতো পেঁয়াজ গেল কোথায়?

আজ সেই প্রশ্নের উত্তর নিয়ে হাজির সময়ের সারা জাগানো নির্বাহী কর্মকর্তা রুহুল আমিন। 

গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে হাটহাজারী পৌরসভার মুরগীহাটা এলাকার একটি রড সিমেন্টের গোডাউন থেকে জব্দ করেছেন ৫ টন পেঁয়াজ। যা মজুদ করা হয়েছিলো পেঁয়াজ সংকটে সাধারণ মানুষের পকেট কাটার লক্ষে। 

বুধবার (০২ অক্টোবর) দুপুরে আমির হোসেনের মালিকানাধীন ওই গোডাউনে অভিযান পরিচালনা করেন হাটহাজারী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রুহুল আমিন নিজেই।

রুহুল আমিন জানান, অভিযান চালিয়ে ৫ টন পেঁয়াজ জব্দ করেছে উপজেলা প্রশাসন। পেঁয়াজের বাজারে কৃত্রিম সংকট সৃষ্টি করে বেশি লাভের আশায় এসব পেঁয়াজ মজুদ করা হয়েছিলো বলে স্বীকার করেছেন গোডাউনের মালিক আমির হোসেন। 

হাটহাজারী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রুহুল আমিন বলেন,‘পেঁয়াজের দাম বৃদ্ধির আভাস পেয়েই গত ১১ সেপ্টেম্বর ভারত থেকে কেনা প্রায় ৫ টন পেঁয়াজ রড-সিমেন্টের গোডাউনে অবৈধভাবে মজুদ করে রেখেছিলেন ব্যবসায়ী আমির হোসেন। গোপন সূত্রে খবর পাই আমরা। অভিযানের সময় কি দামে এ পেঁয়াজ ক্রয় করেছিলেন তার কোনো কাগজপত্রও দেখাতে পারনেনি ব্যবসায়ী আমির। বাজারে কৃত্রিম সংকট তৈরী করে এই বিপুল পরিমাণ পেঁয়াজ মজুদ করায় পেঁয়াজের পাইকারী ব্যবসায়ী আমির হোসেনকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত।’


সাবস্ক্রাইব ইউটিউব চ্যানেল