গ্যাস বিস্ফোরণ, হতাহতদের পাশে মেয়র নাছির

গ্যাস বিস্ফোরণ, হতাহতদের পাশে মেয়র নাছির

 নিজস্ব প্রতিবেদক
  ২০১৯-১১-১৭: ০৬:৩১ পিএম

পাথরঘাটায় গ্যাস বিস্ফোরণে আহতদের সর্বোচ্চ সেবা দেয়ার নির্দেশ এবং যাবতীয় চিকিৎসা ব্যয় সিটি কর্পোরেশন বহন করার ঘোষণা দিয়েছেন চট্টগ্রামের সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিন। সিটি মেয়র, নিহত প্রত্যেকের পরিবারকে এক লক্ষ টাকা এবং দাফন কাফনের জন্য নগদ বিশ হাজার টাকা দেয়ার কথাও জানান। 

রোববার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে দুর্ঘটনাস্থলে এসে তিনি এ ঘোষণা দেন।

আ জ ম নাছির বলেন, আমরা জানতে পেরেছি, সকালে গ্যাসের চুলায় রান্নার সময় বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। বিস্ফোরণে পাশের একটি দেয়াল ধসে পথচারীদের ওপর পড়ে। এ সময় রাস্তায় এক নারী তার সন্তানকে নিয়ে যাচ্ছিলেন, এতে তারাও হতাহত হন। এছাড়া অনেকে দোকান খুলছিলেন, আবার অনেকে দোকানের ভেতরে ছিলেন। তাদের মধ্যে কেউ আহত অথবা নিহত হন।’
সিটি মেয়র, নিহত প্রত্যেকের পরিবারকে এক লক্ষ টাকা এবং দাফন কাফনের জন্য নগদ বিশ হাজার টাকা দেয়া হবে বলে জানান। আহতদের যাবতীয় চিকিৎসা ব্যয় সিটি কর্পোরেশন বহন করবে বলে মেয়র জানান। 
এ সময় স্থানীয় কাউন্সিলর মোহাম্মদ ইসমাইল বালি, হাসান মুরাদ বিপ্লব, শৈবাল দাশ সুমন, সংরক্ষিত ওয়ার্ড কাউন্সিলর লুৎফুন্নেসা দোভাষ, চসিক প্রধান প্রকৌশলী লে.কর্ণেল সোহেল আহমদউপস্থিত ছিলেন। পরে সিটি মেয়র চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও মর্গে হতাহতদের দেখতে এবং আহতদের চিকিৎসার খোঁজখবর নেন। 

ফায়ার সার্ভিসের উপ-সহকারী পরিচালক পূর্ণচন্দ্র মুৎসুদ্দি বলেন, ‘পাথরঘাটায় গ্যাস লাইনের রাইজার বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিস ঘটনাস্থল থেকে ১৭ জনকে উদ্ধার করে চমেক হাসপাতালে পাঠিয়েছে। বিস্ফোরণের কারণে দেয়াল ধসে ৭ জনের মৃত্যু হয়েছে।’

চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালের পুলিশ ফাঁড়ির এএসআই আলাউদ্দিন তালুকদার বলেন, গ্যাস লাইন বিস্ফোরণের ঘটনায় এখন পর্যন্ত ১৭ জনকে হাসপাতালে আনা হয়েছে। এদের মধ্যে ৭ জনকে কর্তব্যরত চিকিৎসকরা মৃত ঘোষণা করেন।

নিহতদের মধ্যে ৪ জন পুরুষ, দুইজন নারী ও এক শিশু রয়েছে।


সাবস্ক্রাইব ইউটিউব চ্যানেল