তথ্য প্রযুক্তির সঠিক ব্যবহার করতে হবে-জেলা প্রশাসক

তথ্য প্রযুক্তির সঠিক ব্যবহার করতে হবে-জেলা প্রশাসক

 নিজস্ব প্রতিবেদক
  ২০১৯-১২-১২: ০৪:৫২ পিএম

চট্টগ্রামের জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ ইলিয়াছ হোসেন বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২০০৮ সালের ১২ ডিসেম্বর ডিজিটাল বাংলাদেশ ঘোষণা করেছেন। ডিজিটাল বাংলাদেশ এখন বাস্তব। তথ্য প্রযুক্তি বর্তমানে মানুষের হাতের মুঠোয়। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমসহ সবক্ষেত্রে তথ্য প্রযুক্তির সঠিক ব্যবহার করতে হবে।
জেলা প্রশাসক বৃহস্পতিবার (১২ ডিসেম্বর) নগরীর সার্কিট হাউজ মিলনায়তনে ডিজিটাল বাংলাদেশ দিবস-২০১৯ উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন।
‘সত্য মিথ্যার যাচাই আগে, ইন্টারনেটে শেয়ার পরে’ এই প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে দিবসটি পালন করা হয়। এ উপলক্ষে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি অধিদপ্তর ও জেলা প্রশাসনের সহযোগিতায় বর্ণাঢ্য র‌্যালির আয়োজন করা হয়। র‌্যালিটি সার্কিট হাউজ থেকে শুরু হয়ে শহরের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে।
সার্কিট হাউজে আলোচনা সভায় জেলা প্রশাসক বলেন, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কোন কিছু ব্যতিক্রমধর্মী চোখে পড়লেই শেয়ার করা উচিত নয়। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে যা কিছু প্রকাশ করা হয় তার সবটাই সত্য নয়। সমাজকে অস্থীতিশীল করার জন্য স্বার্থান্বেষীরা অনেক সময় বিভ্রান্তিকর তথ্য প্রকাশ করে। যে বিষয় ঘটার সম্বাবনা নেই বা না ঘটা সত্বেও ঘটেছে বলে প্রকাশ করা হচ্ছে, তাই গুজব। গুজবে কান না দিয়ে ঘটনার সত্যতা যাচাই করে শেয়ার করতে হবে। ফেইক আইডিতে ব্যতিক্রম তথ্যচিত্র শেয়ার করে জাতিকে বিভ্রান্ত  না করার অনুরোধ জানান জেলা প্রশাসক। হুশিয়ারী উচ্চারণ করে তিনি বলেন, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম অপব্যবহারকারীর বিরুদ্ধে তথ্য প্রযুক্তি আইনের মাধ্যমে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। তথ্য প্রযুক্তির মাধ্যমে উন্নয়ন কর্মকান্ড তুলে ধরে তিনি বলেন, তথ্য প্রযুক্তির জন্য পেপারলেস হচ্ছে দাপ্তরিক কাজ। ই-ফাইলিং, ই-নথি এবং ই-গভর্ণেন্স কার্যক্রম চলছে। সে জন্য সরকার দ্রুত সেবা দিতে সক্ষম হয়েছে। দেশ তথ্য প্রযুক্তিগতভাবে অনেক দূর এগিয়েছে উল্লেখ করে তিনি আরো বলেন, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের অপব্যবহার সম্পূর্ণভাবে বন্ধ করতে হবে। 
অনুষ্ঠানে মূখ্য আলোচক চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের  কম্পিউটার বিজ্ঞান ও প্রকৌশল বিভাগের প্রধান অধ্যাপক ড. আসাদুজ্জামান বলেন, আমরা দারিদ্র্যমুক্ত বাংলাদেশ দেখতে চাই। তথ্য প্রযুক্তিজ্ঞান ছাড়া দারিদ্র্যমুক্ত বাংলাদেশ সম্ভব নয়। শিল্প কারখানায় এখন শ্রমিকরা মেনুয়্যালী কাজ করছেন। আগামী কয়েক বছরের মধ্যে রোবট দিয়ে শিল্প কারখানা চলবে। মানুষ ঘরে বসে দাপ্তরিক কাজ করতে পারবে। চতুর্থ শিল্প বিপ্লবকে সময়ের বাস্তবতা উল্লেখ করে তিনি বলেন, শিল্প বিপ্লব হলো ইঞ্জিনিয়ারিং বিষয় উন্নত হওয়া। তথ্য প্রযুক্তি ইঞ্জিনিয়ারিং এ উন্নত হয়ে আমাদের এ বিপ্লব স¦ার্থক করতে হবে। এর থেকে বাংলদেশের পিছিয়ে থাকার সুযোগ নেই।
অনুষ্ঠানে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) মোঃ আবু হাসান সিদ্দিক, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি অধিদপ্তরের সহকারি প্রোগ্রামার মোঃ এনামুল কবীর ও সাইদ মোঃ জুলকারনাইন অংশগ্রহণ করেন।
এ উপলক্ষে বিকালে সিআরবি শিরিজ তলায় ‘কনসার্ট ফর ডিজিটাল বাংলাদেশ’ এর আয়োজন করা হয়। এতে দেশ বরেণ্য শিল্পীরা সংগীত পরিবেশন করেন। কনসার্ট উদ্বোধন করেন চট্টগ্রাম বিভাগীয় কমিশনার মো. আবদুল মান্নান।   
 


নিউজটি শেয়ার করুন

সাবস্ক্রাইব ইউটিউব চ্যানেল