বাবা-দুই বোনকে হারিয়ে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছে ছোট্ট মন্টি

বাবা-দুই বোনকে হারিয়ে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছে ছোট্ট মন্টি

 নিজস্ব প্রতিবেদক
  ২০১৯-১২-২৮: ০৩:২৫ পিএম

ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের ফৌজদারহাট বাইপাস সড়কে দুর্ঘটনায় বাবা ও দুই বোনকে হারানো ছোট্ট মন্টি (১০) মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছে চমেক হাসপাতালে। একই ঘটনায় গুরুতর আহত মা কণিকা এখনো জানেন না পৃথিবী ছেড়ে চলে গেছেন তাঁর জীবন সঙ্গী ও আদরের দুই ধন।  

শনিবার (২৮ ডিসেম্বর) দুপুরে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের নিউরো সার্জারী বিভাগে (২৮ নম্বর ওয়ার্ড) গিয়ে দেখা যায় এ দৃশ্য।

হাসপাতালের সহযোগী অধ্যাপক ডা. মো. আমিনুল ইসলাম খান বলেন, ‌দুর্ঘটনায় তিনজনের মৃত্যু হলেও দুজন ঘটনাস্থলেই মারা যান। ব্যাংক কর্মকর্তা যিনি তাঁকে হাসপাতালে আনার পর চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যু হয়। উনাকে যখন হাসপাতালে আনা হয় তখন তার কণ্ডিশন খুব খারাপ ছিলো। জিসিএস-৩ পর্য়ায়ে ছিলেন তিনি। আমরা মূলত জিসিএস ১৫ থেকে ১৮ এর মধ্যে থাকলে তাকে স্বাভাবিক বলি।

হাসপাতালে চিকিৎসাধীন নিহত ব্যাংক কর্মকর্তা সাইফুজ্জামান টিংকুর স্ত্রী ও তার ছেলে মন্টির শারীরীক অবস্থার কথা জানাতে গিয়ে চিকিৎসক আমিনুল ইসলাম খান বলেন, কণিকা উনি ভালো আছেন। উনার পা ও হাতে দুটি ফ্রাকচার আছে। জিসিএস ১৫ পর্য়ায়ে । তবে উনার ছেলের ব্রেনে পানি জমে প্রেশারের মধ্যে আছে ব্রেনটা। যার জন্য তার কণ্ডিশন খারাপ।

এসময় হাসপাতালের বাইরে সাইফুজ্জামান টিংকুর পরিচিত অনেককে দেখা গেলেও তখনো ( দুপুর ২ টা) হাসপাতালে এসে পৌছাননি তাদের কোনো স্বজন।

বাংলাদেশ ব্যাংক চট্টগ্রাম কার্যালয়ের এক কর্মকর্তা জানান, সাইফুজ্জামান তার পরিবার নিয়ে বান্দরবান গিয়েছিলেন বেড়াতে। আজ তার স্ত্রী ও ছেলে-মেয়েদের নিয়ে প্রাইভেটকারে ঢাকায় ফিরছিলেন। বান্দরবান থেকে তাদের ঢাকার মিরপুরে যাওয়ার কথা ছিল। ওই প্রাইভেটকারটি ফৌজদারহাট বাইপাস সড়কে এলে ঢাকা থেকে চট্টগ্রামমুখী একটি লরি তাদের প্রাইভেটকারে ধাক্কা দেয়।

তিনি বলেন, নিহত সাইফুজ্জামান স্যারের পরিবার চাঁদপুর থাকেন। তারা হাসপাতালে আসছেন। তবে চট্টগ্রামে তাদের কোনো স্বজন না থাকায় আমরা এসেছি।

এদিকে বার আউলিয়া হাইওয়ে থানার এসআই কাউসার বলেন, নিহত সাইফুজ্জামান মিন্টুর বাড়ি চাঁদপুর জেলার কচুয়া থানার নিশ্চিন্তপুর গ্রামে। তারা বান্দরবান থেকে ঢাকার মিরপুরের বাসায় ফিরছিলেন। সকাল পৌনে ৮টার দিকে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের ফৌজদারহাট বাইপাস এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। বেপরোয়া লরির ধাক্কায় দুটি প্রাইভেটকার দুমড়ে-মুচড়ে যায়। এতে ঘটনাস্থলে মারা যান সাইফুজ্জামান এর দুই কন্যা তাসরিন (১৩) তাসপিয়া (১৪)। লরিটি ড্রাইভাইসহ আটক করা হয়েছে। ক্ষতিগ্রস্থ প্রাইভেটকার দুটি থানায় নেওয়া হয়েছে।


সাবস্ক্রাইব ইউটিউব চ্যানেল