চট্টগ্রাম বন্দরের অপারেশনাল কার্যক্রম বন্ধ ঘোষণা

চট্টগ্রাম বন্দরের অপারেশনাল কার্যক্রম বন্ধ ঘোষণা

 নিজস্ব প্রতিবেদক
  ২০২০-০৫-১৯: ০৪:২৭ পিএম

ঘূর্ণিঝড় 'আম্ফান' মোকাবিলায় আবহাওয়া দফতরের পূর্বাভাস অনুসারে সম্ভাব্য ক্ষতি মোকাবিলার প্রস্তুতি হিসেবে চট্টগ্রাম বন্দরের জেটি ও সীমানা থেকে সব জাহাজ সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। জাহাজশূন্য চট্টগ্রাম বন্দরের অপারেশনাল কার্যক্রমও বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে।

 

মঙ্গলবার (১৯ মে) সকালবেলার জোয়ারের মধ্যে চট্টগ্রাম বন্দরের জেটি ও বর্হিনোঙ্গর থেকে ৭৬টি জাহাজ কর্তৃপক্ষের নির্দেশক্রমে সেন্টমার্টিন উপকূলের দিকে গিয়ে ভিড়েছে। এছাড়াও পাঁচ শতাধিক লাইটারেজ জাহাজকে কর্ণফুলী নদীতে শাহ আমানত সেতুর দক্ষিণে নিরাপদ অবস্থানে পাঠানো হয়েছে।

এ ব্যাপারে চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষের সচিব ওমর ফারুক জানান, ‘জেটিতে পণ্য উঠানামা করছিল ১৫টি জাহাজ। সকালের জোয়ারে সেগুলোকে বাইরে পাঠানো হয়েছে। আরও ৪টি জাহাজ জেটিতে ছিল। সেগুলোকেও গভীর সাগরে পাঠানো হয়েছে। বর্হিনোঙ্গরে যে জাহাজগুলো ছিল সেগুলোকে সেন্টমার্টিন উপকূলে নোঙ্গর করে রাখতে বলা হয়েছে। সেগুলোও অলমোস্ট চলে গেছে।’

সচিব ওমর ফারুক জানান, মঙ্গলবার (১৯ মে) সকাল থেকে চট্টগ্রাম বন্দরের জেটিতে জাহাজ থেকে সব ধরনের পণ্য উঠানামা বন্ধ আছে। বর্হিনোঙ্গরেও মাদার ভেসেল থেকে লাইটার জাহাজে পণ্য উঠানামা বন্ধ আছে। সাগর উত্তাল থাকায় লাইটারেজ জাহাজ চলাচল বন্ধ আছে। বন্দরের ইয়ার্ড থেকে সীমিত আকারে কিছু কনটেইনার ডেলিভারি এখনও অব্যাহত আছে। তবে বন্দরের নৌযান এবং জেটিতে সব ধরনের যন্ত্রপাতি সুরক্ষা নিশ্চিত করা হয়েছে।

এর আগে, সোমবার (১৮ মে) সন্ধ্যাতেই চট্টগ্রাম বন্দরে নিজস্ব সংকেত অ্যালার্ট-থ্রি জারি করা হয়েছে। সার্বিক পরিস্থিতিতে চট্টগ্রাম বন্দরে তিনটি কন্ট্রোল রুম খোলা হয়েছে। তিন বিভাগের তিন কন্ট্রোলরুমে 031 - 726 916, 031- 2517711 এবং 01751 71 30 37 নম্বরে যোগাযোগ করা যাবে।


সাবস্ক্রাইব ইউটিউব চ্যানেল