কাশ্মীরীরা ভারতের চেয়ে বরং চীনা শাসনে থাকতে রাজি হবে: ফারুক আবদুল্লাহ

কাশ্মীরীরা ভারতের চেয়ে বরং চীনা শাসনে থাকতে রাজি হবে: ফারুক আবদুল্লাহ

 আন্তর্জাতিক ডেস্ক
  ২০২০-০৯-২৪: ০১:৩২ পিএম

জম্মু ও কাশ্মীরের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী ফারুক আবদুল্লাহ জোরালো ও আবেগময় এক সাক্ষাতকারে বলেছেন, এই মুহূর্তে কাশ্মীরীরা নিজেদের ভারতীয় বলে মনে করে না, তারা ভারতীয় হতে চায় না। তিনি এমনকি এটাও বলেন যে তারা বরং চীনাদের শাসনে থাকতে চাইবে। তিনি আক্ষরিক অর্থেই কথাটি বলেছেন কিনা জানতে চাইলে তিনি আবারো একই কথা উচ্চারণ করেন।

ন্যাশনাল কনফারেন্স পার্টির প্রধান ও চার দশক ধরে জম্মু ও কাশ্মীরে সবচেয়ে পরিচিত ‘ভারতপন্থী’ মুখ আবদুল্লাহ ওই সাক্ষাতকারে কাশ্মীরীদের ক্রীতদাস হিসেবেও অভিহিত করে বলেন যে তাদের সাথে দ্বিতীয় শ্রেণির নাগরিকদের মতো আচরণ করা হচ্ছে।

দি ওয়্যারকে দেয়া ৪৪ মিনিটের সাক্ষাতকারে আবদুল্লাহ বলেন, কেবল কোনো প্রতিবাদ নেই বলেই কাশ্মীরের জনগণ ২০১৯ সালের আগস্টের পরিবর্তনকে গ্রহণ করে নিয়েছে বলে ভারতীয় জনতা পার্টির (বিজেপি) দাবি পুরোপুরি ফালতু একটি বিষয়।

তিনি বলেন, প্রতিটি রাস্তা থেকে সৈন্য ও ধারা ১৪৪ প্রত্যাহার করা হলে লোকজন লাখে লাখে তাদের ঘরবাড়ি থেকে বের হয়ে আসবে। আবদুল্লাহ দি ওয়্যারকে বলেন, নতুন ডোমিসাইল আইন করা হয়েছে উপত্যকায় হিন্দুদের বন্যা সৃষ্টির উদ্দেশ্য এবং হিন্দু সংখ্যাগরিষ্ঠতা সৃষ্টির জন্য। তিনি বলেন, এটি কাশ্মীরী জনগণের মনকে আরো বিষিয়ে তুলেছে।

কাশ্মীরীরা কেন্দ্রীয় সরকার, এবং বিশেষ করে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহকে কিভাবে দেখে, এমন প্রশ্নের জবাবে আবদুল্লাহ বলেন, তারা গভীরভাবে মোহমুক্ত। তিনি বলেন, কেন্দ্রীয় সরকারের প্রতি তাদের কোনো আস্থা নেই।


নিউজটি শেয়ার করুন

সাবস্ক্রাইব ইউটিউব চ্যানেল