সাম্পান বাইচে প্রথম হয়েছেন শিকলবাহার শেখ আহমদ মাঝি

সাম্পান বাইচে প্রথম হয়েছেন শিকলবাহার শেখ আহমদ মাঝি

 নিজস্ব প্রতিবেদক
  ২০২০-১০-১৭: ০৬:২৬ পিএম

ঘড়ির কাঁটা তখন সাড়ে তিনটা ছুঁই-ছুঁই। কর্ণফূলীর পানিতে ইতোমধ্যেই ভাটার টান শুরু হয়ে গেছে। কর্ণফুলী নদীর দক্ষিণ পাড়ের চরপাথরঘাটা ঘাট ঘেঁষে দশটি সাম্পান একই রেখায় দাঁড়ানো। প্রতিটি সাম্পানে দশজন করে মাঝিমাল্লা। সবার অপেক্ষা হুইসেলের। হুইসেল বেজে ওঠতেই শুরু হয় সাম্পান বাইচ।

কিন্তু বাইচের প্রতিযোগীদের চাইতে বড় প্রতিপক্ষ হয়ে দাঁড়ালে ভাটার টান। সব গুলো সাম্পানকে স্রোত টেনে নিয়ে যাচ্ছে বঙ্গোপসাগরের মোহনার দিকে। কিন্তু না; তাঁরা চাটগাইঁয়া নওজোয়ান। ঘাম ঝরানো দাঁড় বেয়ে মাঝিমাল্লারা ঠিকই কর্ণফুলী নদীর উত্তর পাড় অভয়মিত্র ঘাটে এসে পৌছান মাত্র পাঁচ মিনিটে!

আজ শনিবার বিকেলে কর্ণফুলী নদীতে মনোরম এই সাম্পান বাইচ দেখতে বিভিন্ন বয়সের হাজার হাজার নারী-পুরুষ ভিড় করেন। বইঠা নৌকা, ইঞ্জিনচালিত সাম্পান, নৌকা কিংবা স্পিডবোট নিয়ে নদীতে ঘুরে বেড়িয়েছেন তাঁরা। উদ্দেশ্য সাম্পান খেলা বা বাইচ দেখা। প্রচন্ড স্রোত ঠেলে সবাইকে অবাক করে সাম্পান বাইচে প্রথম হয় শেখ আহমদ মাঝি ও তার দল।

কর্ণফুলীর দূষণের প্রতিবাদ জানাতে এই প্রতিযোগিতার আয়োজন করে চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগ।  বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষে দুই দিনব্যাপী অনুষ্ঠানমালার দ্বিতীয় দিনে আজ বিকেলে সাম্পান বাইচ অনুষ্ঠিত হয়। সহযোগীতা করেছে চট্টগ্রাম ইতিহাস সংস্কৃতি গবেষণা কেন্দ্র ও কর্ণফুলী নদী সাম্পান মাঝি কল্যাণ সমিতি।

প্রতিযোগীতায় সামান্য পেছনে থেকে দ্বিতীয় স্থান অর্জন করেছে মাদরাসা পাড়ার মোহাম্মদ তারেক ও তার দল, তৃতীয় স্থান অর্জন করেছে ইছানগর-বাংলাবাজার সাম্পান মালিক সমিতি। প্রথম হওয়া দলকে একটি মোটরসাইকেল, দ্বিতীয় দলকে একটি ফ্রিজ ও তৃতীয় দলকে ৩২ ইঞ্চি রঙিন টেলিভিশন পুরস্কার হিসেবে দেওয়া হয়।

প্রতিযোগীতায় প্রথম স্থান অর্জন করা শেখ আহমদ মাঝি বলেন, আমরা গত দুইদিন প্রশিক্ষণ নিয়েছি। জানতাম প্রতিযোগীতার সময় নদীতে ভাটির টান থাকবে তাই কৌশলের আশ্রয় নেই। ১৩ বছর ধরে প্রতিযোগীতায় অংশ নিচ্ছি, প্রতিবারই প্রথম, দ্বিতীয় অথবা তৃতীয় হয় আমার দল। এবার প্রথম হয়ে আমি ও আমার দল অত্যান্ত আনন্দিত'।

 


নিউজটি শেয়ার করুন

সাবস্ক্রাইব ইউটিউব চ্যানেল